দেপোর্তিভো রুখে দিল বার্সেলোনাকে
দেপোর্তিভো রুখে দিল বার্সেলোনাকে
স্পোর্টস ডেস্কঃ মৌসুমে লা-লীগায় নিজেদের শেষ ম্যাচে হোচট খেলো বার্সেলোনা। ২০১৪-১৫ মৌসুমে লা-লীগায় নিজেদের শেষ ম্যাচে লিওনেল মেসির জোড়া গোলে দেপোর্তিভো লা করুনার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে বার্সেলোনা। মেসির জোড়া গোলে এগিয়ে থেকে কাম্প নউতে ১৭ বছরের ক্যারিয়ার শেষে বিদায় নিতে চলা চাভিকে জয় উপহার দেওয়ার পথেই ছিল বার্সেলোনা। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শেষ ২৫ মিনিটে দুই গোল করে সমতা ফিরিয়ে অবনমন হওয়া থেকে বেঁচে যায় দেপোর্তিভো। তবে শেষ ম্যাচটা ছিল শুধুই আনুষ্ঠানিকতার। তাই হয়তো বার্সা কোচ লুইস এনরিকে শুরুর একাদশে এনেছিলে বড় ধরনের পরিবর্তন। নিয়মিত একাদশের পিকে, মাসচেরানো, ইনিয়েস্তাদের বদলে এদিন শুরু থেকেই মাঠে নামিয়েছিলেন আদ্রিয়ানো, বারত্রা, ম্যাথিউদের। বার্সার হয়ে প্রথম মাঠে নামেন বার্সার বেলজিয়ান ডিফেন্ডার থমাস ভার্মালেন। ঘরের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে ম্যাচের শুরু থেকেই বল নিয়ন্ত্রণে রেখে খেলতে থাকা বার্সা প্রথম সাফল্য পায় ম্যাচের ৫ মিনিটেই। ডি বক্সের ভেতর ডানপ্রান্ত থেকে রাফিনহার বাড়িয়ে দেয়া ক্রসে হেড করে লক্ষ্যভেদ করেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। ম্যাচের ১৫ মিনিটে নেইমারের বাড়ানো ক্রসে ব্যবধান দ্বিগুন করেন লিওনেল মেসি। তবে অফসাইড হওয়ায় বাতিল হয়ে যায় গোলটি। এরপর ম্যাচের ৩৬ মিনিটে আদ্রিয়ানোর ট্যাকলে গুরুতর আঘাত পেয়ে ম্যাচের ৩৯ মিনিটে মাঠ ছাড়েন দেপোর্তিভোর রবার্ট কানেলা, তার বদলী হিসেবে মাঠে নামেন হারিস মেদুনজানিন। আর কোন গোল না হওয়ায় ১-০ গোলে লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে বার্সেলোনা। দ্বিতিয়ার্ধে মাঠে নেমে আরো আক্রমনাত্বক খেলতে থাকা বার্সেলোনা ব্যবধান দ্বিগুণ করে ম্যাচের ৫৯ মিনিটে। নেইমারের বাড়িয়ে দেয়া বলে গোলের ব্যবধান দ্বিগুন করেন মেসি। তবে ম্যাচের ৬৭ মিনিটে দেপোর্তিভোর হয়ে গোল করে ব্যবধান ২-১ করেন লুকাস পেরেজ। এরপরেই ম্যাচের ৭৬ মিনিটে দেপোর্তিভোর ডিয়েগো সলোমো আরো একটি গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোন গোল আদায় করতে পারেনি কোন দলই।

Post a Comment

 
Top