স্টাফ রিপোর্টারঃ কুলাউড়া পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবু সুফিয়ানের ওপর হামলাকারীদের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তারের আল্টিমেটাম দিয়েছেন উপজেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দ।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে জয়চণ্ডী ও সদর ইউপি যুবলীগের আয়োজনে উপজেলার গাজীপুর বাজারের চৌমুহনীতে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় এ আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুস সহিদের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতাকর্মীরা প্রায় শতাধিক মোটরসাইকেল শোডাউনের মাধ্যমে স্থানীয় গাজীপুর বাজার এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেন।

পরে গাজীপুর বাজারের চৌমুহনীতে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় জয়চন্ডী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. দুলাল আহমদের সভাপতিত্বে ও সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জুনাব আলীর পরিচালনায় প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. আব্দুস সহিদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ময়নুল ইসলাম সবুজ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগ নেতা আব্দুর রকিব, ইছই আহমদ, প্রভাষক আহসান রাব্বী মিরাজ, প্রভাষক খালিক উদ্দিন, সিপন খান এবং পৌর ও বিভিন্ন ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সম্পাদকসহ নেতৃবৃন্দরা।

প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুস সহিদ বলেন, বিএনপির সন্ত্রাসী নেতা হামিদ ও তাঁর সহযোগী কর্তৃক প্রকাশ্যে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করেছে। যা খুবই ন্যক্কারজনক। হামলার প্রায় একদিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও পুলিশ ওই নেতা এবং তার সহযোগীদের ধরতে পারেনি। পুলিশ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ওই সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় যুবলীগের সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে কঠোর কর্মসূচি গ্রহণ করতে বাধ্য হবো।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতে কুলাউড়া উপজেলার স্থানীয় গাজীপুর বাজার এলাকায় ব্যবসায়ীক বিরোধের জেরে পূর্ব পরিকল্পনানুযায়ী আব্দুল হামিদসহ ৮-১০ জন দূর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র দিয়ে পৌর যুবলীগ নেতা আবু সুফিয়ানকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেন। গুরুতর আহত সুফিয়ান সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। এঘটনায় এজাহারভুক্ত আসামীদের গ্রেপ্তার করতে না পারায় যুবলীগ নেতাদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

Post a Comment

 
Top