অনলাইন ডেস্ক: উত্তর ওয়াজিরিস্তানের উপজাতীয় এলাকা এবং বেলুচিস্তানে দুটি সন্ত্রাসী হামলায় পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনীর এক কর্মকর্তাসহ ১০ সদস্য নিহত হয়েছেন। শনিবার দেশটির সেনাবাহিনীর গণমাধ্যম শাখার বরাতে ডন অনলাইনের খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

উত্তর ওয়াজিরিস্তান জেলার গুরবাজ এলাকার কাছে টহল দল লক্ষ্য করে আফগান সীমান্ত থেকে এলোপাতাড়ি গুলি করা হলে সেনাবাহিনীর ছয়জন সদস্য নিহত হন।

আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের(আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে বলা হয়, সীমান্ত থেকে সন্ত্রাসীরা পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর সীমান্ত টহল দলকে লক্ষ্য করে নির্বিচারে গুলি ছোড়ে। সেখানেই ছয় সেনা নিহত হয়েছেন।

নিহতরা হলেন, হাবিলদার খালিদ, সিপাহি নাভিদ, সিপাহি বাচল, সিপাহি আলী রাজা, সিপাহি মোহাম্মদ বাবর ও সিপাহি আহসান।

দ্বিতীয় হামলার ঘটনা ঘটেছে বেলুচিস্তানে। সেখানে হাসবাব ও টুরবাটের মধ্যে অভিযান চালানোর সময় সন্ত্রাসীরা সীমান্ত বাহিনীর ওপর গুলি ছুড়লে চার জওয়ান নিহত হয়েছেন।

বেলুচিস্তানে নিহত সেনারা হলেন, ক্যাপ্টেন আকিব, সিপাহি নাদির, সিপাহি আতিফ ও সিপাহি হাফিজুল্লাহ।

পাকিস্তান আইএসপিআরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর এক টুইটে বলেন, সীমান্তে ও বেলুচিস্তানে নিহত ১‌০ সেনা এ অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠায় নিজেদের উৎসর্গ করেছেন।

তিনি বলেন, উপজাতীয় অঞ্চলে যখন নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নতি ঘটেছে, যখন পশ্চিমাঞ্চলীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা দৃঢ় করার চেষ্টা করা হচ্ছে, তখন শত্রুরা বেলুচিস্তানকে অস্থিতিশীল করার পাঁয়তারা করছে। তাদের চেষ্টা ইনশাআল্লাহ ব্যর্থ হবে বলে তিনি জানান।

আফগান শান্তি ও আঞ্চলিক নিরাপত্তা নিয়ে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে পাকিস্তানের বেসামরিক ও সামরিক নেতৃবৃন্দের আলোচনার কয়েকদিন পর এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া এক টুইটে বলেন, আফগানিস্তান শান্ত আলোচনা ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর অবদান স্বীকার করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃবৃন্দ।

Post a Comment

 
Top