বিশেষ প্রতিনিধিঃ দুপুরে হালকা নাস্তা করতে রেস্টুরেন্টে গিয়েছিলেন এক যুবক। পছন্দের সিংগারা মুখে দিতেই দাঁত কাড়মড় করে উঠল। পাথর নাকি? সঙ্গে সঙ্গে মুখ থেকে কামড়ানো সিংগারার অংশটা সামনে ফেলতেই চমকে উঠলেন সেই তিনি। একি এতো আস্তা ‘টিকটিকি’।

বিষয়টি প্রতিবাদ করলে রেস্টুরেন্টের বাবুর্চি সেই যুবককে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে। প্রতিবাদী যুবক কামড়ানো সিংগারার অংশটুকু নিয়ে হাজির হয় কুলাউড়া থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) শামীম মূসার রুমে। ঘটনার বর্ণনা শুনে বৈশাখী রেস্টুরেন্টে ঘেরাও করতে এসআই আনোয়ারকে নিদের্শ দেন ওসি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালানা করে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ইউএনও।

এ ঘটনাটি ঘটে শনিবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১টায় মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজারের বৈশাখী হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টে।

এসআই আনোয়ার জানান, আমি রেস্টুরেন্টে ঘেরাও করার কিছু সময়ের মধ্যে ইউএনও স্যার সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

কুলাউড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবুল লাইছ জানান, নোংরা পরিবেশে খাবার তৈরি ও খাবারের মধ্যে টিকটিকি পাওয়ায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ব্রাহ্মণবাজারের বৈশাখী রেস্টুরেন্টেকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে মালিককে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। পরে জরিমানার টাকা পরিশোধ করে রেস্টুরেন্টের মালিক।

Post a Comment

 
Top