চার মন্ত্রীকে ন্যাম ভবন ছাড়তে চিঠি দিবে সংসদ কমিটি
চার মন্ত্রীকে ন্যাম ভবন ছাড়তে চিঠি দিবে সংসদ কমিটি
নিউজ ডেস্কঃ রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ের ন্যাম ভবনের ফ্ল্যাট ছাড়ার জন্য চার মন্ত্রীকে চিঠি দিবে সংসদ কমিটি। মন্ত্রী পাড়ায় ফ্ল্যাট পাওয়ার পরও এসব বাসা দখলে রেখেছেন তারা। এর আগেও একাধিকবার চিঠি দেওয়া হলেও এখনও ফ্ল্যাট দখল করে রেখেছেন তারা। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংসদ কমিটির ৬ষ্ঠ বৈঠক এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কমিটির সভাপতি ও জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। এছাড়া কমিটির সদস্য তাজুল ইসলাম চৌধুরী, আব্দুস শহীদ, হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি, পঞ্চানন বিশ্বাস, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আসলামুল হক এবং নাজমুল হক প্রধান বৈঠকে অংশ নেন। বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা গেছে, মানিক মিয়া এভিনিউয়ে মৎস ও প্রাণী সম্পদমন্ত্রী মোহাম্মদ ছায়েদুল হক, ভুমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, নৌমন্ত্রী শাজাহান খান ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ফ্ল্যাট দখলে রেখেছেন। তাদের নামে ওইসব বাসা বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। কিন্তু তারা দীর্ঘদিন ধরে দখলে রেখেছেন। সর্বশেষ গত ৫ মে তাদেরকে ফ্ল্যাট ছেড়ে দেওয়ার জন্য চিঠি দেওয়া হয়। কিন্তু ফ্ল্যাট ছাড়েননি তারা। এজন্য আবারও তাদের চিঠি দেওয়া হবে। এ বিষয়ে সংসদ কমিটির সভাপতি আ স ম ফিরোজ জাগো নিউজকে বলেন, ওইসব ফ্ল্যাট ছেড়ে দেওয়ার জন্য তাদের অনেকবার ফোন করেছি। কেউ কেউ বলেছেন তাদের মালামাল রয়েছে সেখানে। কেউ কেউ আবার দাবি করছেন তাদের পরিবারের সদস্য বেশি। তাই তাদের দখলে থাকা ফ্ল্যাটগুলো ছেড়ে দেওয়ার জন্য আবার চিঠি দেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, এমপিদের আরেক বাসস্থান নাখালপাড়ায় কিছু ফ্ল্যাট এখনও খালি পড়ে আছে। ন্যাম ভবনের ফ্ল্যাট ছেড়ে দিয়ে স্পিকারের অনুমতি নিয়ে তাদের সেখানে বারাদ্দ নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সংসদের কাছে হওয়ায় ন্যাম ভবনের ফ্ল্যাট ছাড়াতে চাইছেন না তারা। সংসদের একটি সূত্র জানায়, ন্যাম ভবনের ফ্ল্যাটে শুধু চারজন নয় আরো অনেকে অবৈধ্ভাবে অবস্থান করছেন। সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ একটি ফ্ল্যাট দখলে রেখেছেন। কিন্তু সংসদ কমিটি এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এ বিষয়ে আ স ম ফিরোজ বলেন, ‘অতবড় লোকদের বিষয়ে হাত দিতে চাই না আমরা। তার তো একটা মর্যাদা আছে।` জানা যায়, বৈঠকে মানিক মিয়া এভিনিউয়ের ৬টি সদস্য ভবনে বসবাসরত এমপিদেরকে শব্দ দুষণ থেকে রক্ষা করতে ভবনসমূহে সাউন্ড প্রটেক্টর ব্যবস্থা চালুর সুপারিশ করা হয়। এর পাশাপাশি প্রতিটি ভবনে একটি করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট সংসদ সদস্য ভবন ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করার সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে বসবাসরত সংসদ সদস্যদের ফ্ল্যাটসমূহে দু’টি লিফটের মধ্যে একটি লিফট এমপিদের জন্য সংরক্ষণ। ভবনের দেয়ালে লাগানো পোস্টার পরিস্কার করার এবং পুনরায় কেউ যাতে কোন ধরনের পোষ্টার না লাগাতে পারে গণপূর্ত অধিদপ্তরকে সে ব্যবস্থা নিশ্চিত করার সুপারিশ করা হয়েছে।

Post a Comment

 
Top